১. শিক্ষক ও স্টাফদের বেতন-ভাতা।
২. ছাত্রদের ভরণপোষণ (এ ফান্ডে যাকাত, ফিতরা, ফিদিয়া, কোরবানীর চামড়া ইত্যাদির টাকাও গ্রহণ করা হয়)
৩. গ্রন্থাগারের জন্য কিতাব ক্রয়।
৪. মেহমানখানা
৫. চিকিৎসা
৬. মাসিক আল-আবরার প্রকাশনা।
৭. মসজিদ
৮. নির্মাণ।
৯. ফাতাওয়া প্রকল্প।
১০. বিবিধ।
অতএব উপরোক্ত খাতসমূহে কোনো ধর্মপ্রাণ মুসলমান স্বতঃস্ফূর্ত অংশ নিতে ইচ্ছা পোষণ করলে নিম্নে প্রদত্ত ঠিকানায় যোগাযোগ করা যেতে পারে।